জাতীয় ক্রিকেট দলের ওপেনার ব্যাটসম্যান ছাত্রলীগের কমিটিতে, যা বললেন তিনি

Your ads will be inserted here by

Easy Plugin for AdSense.

Please go to the plugin admin page to
Paste your ad code OR
Suppress this ad slot.

স্পোর্টস ডেস্ক: জাতীয় ক্রিকেট দলের ওপেনার ব্যাটসম্যান ছাত্রলীগের রাজনীতিতে। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কমিটিতে ‘ক্রীড়া সম্পাদক’ পদ পেয়েছেন জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের ওপেনার শারমিন আক্তার সুপ্তা। খেলাধুলার পাশাপাশি ছাত্রলীগের মাধ্যমে দেশের মানুষের সেবা করার সুযোগ পাবেন বলে মনে করেন তিনি।

তিনি বলেন, পারিবারিক আদর্শ থেকেই আসলে আমার রাজনীতিতে আসা। আমি যেহেতু একজন ক্রীড়াবিদ বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ক্রীড়া সম্পাদক হিসেবে যথাযথ দাযিত্ব পালন করতে পারবো বলে আশা করি।

জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের এই ওপেনার বর্তমানে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সরকার ও রাজনীতি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের (৪৩তম আবর্তনের) শিক্ষার্থী এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজিলাতুন্নেছা হলের আবাসিক ছাত্রী।

কীভাবে ছাত্র রাজনীতিতে আসা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ছোটবেলা

থেকে আমার বাবার কাছ থেকেই মূলত আমার রাজনীতি শেখা। আমার রাজনীতিতে আসার পিছনে মাহবুব আরা গিণিরও অবদান রয়েছে। দেশের ক্রীড়াবিদ হয়ে রাজনীতিতে তার সফল পথচলা দেখে আমি সবসময় অনুপ্রাণিত হই।

সরাসরি ছাত্র রাজনীতি করার জন্য খেলার কোন সমস্যা হবে কী না জানতে চাইলে তিনি বলেন, রাজনীতি একটি আদর্শিক ব্যাপার। আর খেলাটা আমি খেলি আমার দেশের জন্য, দেশের প্রতিটি মানুষের জন্য। খেলাধুলার পাশাপাশি হয়তো একদিন এই ছাত্রলীগ করার মাধ্যমেও দেশের মানুষের সেবা করার সুযোগ পাব।

শুক্রবার রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ‘ক্রীড়া সম্পাদক’ পদে তার নাম প্রকাশ করা হয়।

সুপ্তার ‘ক্রীড়া সম্পাদক’ পদ প্রাপ্তির বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান চঞ্চল বলেন, সুপ্তা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সম্পদতো বটেই, সে সারা বাংলাদেশের সম্পদ। আমরা তাকে যথাযোগ্য পদে মূল্যায়ন করার চেষ্টা করেছি। তার প্রতি আমাদের চাওয়া সে দেশের ক্রীড়া অঙ্গনকে আরো অগ্রগতির দিকে নিয়ে যাবে।

এর আগে গত বছরের ২৯ মে শারমীন আক্তার সুপ্তাকে বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ-সম্পাদক পদে মনোনীত করা হয়। সহ-সম্পাদক হিসেবে মনোনীত হওয়ার আগে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় শাখার কার্যকরী সদস্য ছিলেন বলে জানা যায়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সিইও নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন বলেন, বিসিবি মুক্ত চিন্তায় বিশ্বাসী। এ প্রতিষ্ঠান কারো মুক্ত চিন্তায় হস্তক্ষেপ করে না। তাছাড়া এ ব্যাপারে বোর্ডের কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। তাই কোনো দলের সঙ্গে ক্রিকেটাররা সংযুক্ত হলে বোর্ডের পক্ষ থেকে তাকে বাধা দেয়া হয় না।-চ্যানেল আই






Related News

  • বাবা বেঁচে থাকলে আজ আমাকে নিয়ে অনেক গর্ব করতে পারতেন: সাইফউদ্দিন
  • জাতীয় ক্রিকেট দলের ওপেনার ব্যাটসম্যান ছাত্রলীগের কমিটিতে, যা বললেন তিনি
  • আজকের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ-পাকিস্তানের সম্ভাব্য একাদশে রয়েছেন যারা
  • হুমকির মুখে পড়েছে বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট
  • আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে জায়গা হারাল ভারত, পরিবর্তে সুযোগ পাচ্ছে যে দল?
  • Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *